অর্থনীতি বিভাগ

অর্থনীতি বিভাগ

    শিক্ষার্থীদের তালিকা

    বিষয়বস্তু খুঁজে পাওয়া যায় নাই
    বিষয়বস্তু খুঁজে পাওয়া যায় নাই
    • পবিপ্রবিতে নবীন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন

      পোস্টের তারিখ : ১৮-০৩-২০১৭
      পবিপ্রবি: পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (পবিপ্রবি) ২০১৬-২০১৭ শিক্ষাবর্ষে বিভিন্ন অনুষদে ভর্তিকৃত নবীন ছাত্র-ছাত্রীদের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) সকাল ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় অডিটোরিয়ামে এ ওরিয়েন্টেশনের আয়োজন করা হয়। ডিন কাউন্সিলের কনভেনর প্রফেসর ড. আবুল কাশেম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ওরিয়েন্টেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ভিসি প্রফেসর ড. মো. হারুন-অর-রশীদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রো-ভিসি প্রফেসর মোহাম্মদ আলী। অনুষ্ঠানে রেজিস্ট্রার প্রফেসর জেহাদ পারভেজের উপস্থাপনায় শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন- এলএমএ অনুষদের ডিন প্রফেসর আ ক ম মোস্তফা জামান, সিএসই অনুষদের ডিন প্রফেসর আলী আজগর ভূইয়া, খাদ্য ও পুষ্টি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. রবিউল হক, প্রক্টর প্রফেসর ড. পূর্ণেন্দু বিশ্বাস, নবাগত শিক্ষার্থীদের মধ্যে কৃষি অনুষদের মো. শাওন সিকদার, সিএসই অনুষদের আবদুল্লাহ নইম ও বিবিএ অনুষদের জাকির রায়হান প্রমুখ। অনুষ্ঠানের শুরুতে নবীন শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো। আরও পড়ুন
    • মাতৃভাষায় লেখা বই পেলো ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর শিক্ষার্থীরা

      পোস্টের তারিখ : ১৮-০৩-২০১৭
      বান্দরবান: প্রথমবারের মতো মাতৃভাষায় রচিত বই হাতে পেলো বান্দরবানের প্রাথমিক পর্যায়ের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ছাত্র-ছাত্রীরা। রোববার (১৫ জানুয়ারি) দুপুরে শহরের বঙ্গবন্ধু মুক্তমঞ্চে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উ শৈ সিং বই বিতরণ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন। যৌথভাবে এর আয়োজন করে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ। বই বিতরণ ‍অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা। উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অর্ণিবান চাকমা, পার্বত্য জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুল আবছার প্রমুখ। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ জানায়, এ বছর বান্দরবান জেলায় ১ হাজার ১২২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মারমা ভাষায় লেখা ৭৫৯টি টিচার গাইড, ৫টি এক্সারসাইজ বুক এবং চাকমা ভাষায় লেখা ৭৫৯টি টিচার গাইড ও ৫টি এক্সারসাইজ বুক বিতরণ করা হয়। তবে ত্রিপুরা, গারো ভাষায় কোনো বই বিতরণ করা হয়নি। বান্দরবান জেলার ৫ হাজার ১২১ জন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের জন্য বইয়ের চাহিদা দেওয়া হয়েছিলো। এখন পর্যন্ত হাতে এসেছে মাত্র ১ হাজার ৫৫৮টি বই, জানায় জেলা প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ। আরও পড়ুন
    • সার্টিফিকেটমুখী বিদ্যা অর্জন নয়, দক্ষ জনশক্তি হয়ে উঠতে হবে

      পোস্টের তারিখ : ১৮-০৩-২০১৭
      সার্টিফিকেটমুখী বিদ্যা অর্জনের মনোভাব দূর করে শিক্ষার্থীদের দক্ষ জনশক্তি হিসেবে গড়ে উঠতে হবে বলে মনে করেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান। প্রত্যেক শিক্ষার্থী তিনটি বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করলে বর্তমান বাংলাদেশকে এগিয়ে নেওয়া সম্ভব বলে মনে করেন তিনি। তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের অবশ্যই বাকপটুতা, তথ্য প্রযুক্তি ও ইংরেজি এই তিনটি ক্ষেত্রে দক্ষতা অর্জন করতে হবে। বুধবার (৮ ফেব্রুয়ারি) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, আমরা মধ্যপ্রাচ্যের কোন একটি দেশে গৃহপরিচারিকা পাঠাতে পারলেই খুশি হই। কিন্তু আমরা জানিনা যে, ওইসব দেশে দক্ষ নার্সদের কত চাহিদা। আমাদের নার্সিং শিক্ষা যে মানে থাকা উচিত সেখানে নেই। আরও পড়ুন
    • রাবিতে বিচারপতি বজলুর রহমান স্মরণে শোকসভা

      পোস্টের তারিখ : ১৮-০৩-২০১৭
      রাবিতে বিচারপতি বজলুর রহমান স্মরণে শোকসভা-ছবি: বাংলানিউজ রাবি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় আইন বিভাগের প্রাক্তন কৃতী ছাত্র ও সিনেট সদস্য, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আপিল বিভাগের বিচারপতি সদ্য প্রয়াত বজলুর রহমান ছানার স্মরণে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) শোক সভা হয়েছে। শনিবার (২১ জানুয়ারি) সকাল ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সুখরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে (টিএসএসসি) এ শোক সভার আয়োজন করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন- রাবি উপাচার্য প্রফেসর মুহম্মদ মিজানউদ্দিন, উপ-উপাচার্য প্রফেসর চৌধুরী সারওয়ার জাহান, সাবেক রাকসু সহ-সভাপতি ও সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা, সংসদ সদস্য মো. আবুল কালাম ও আব্দুল ওয়াদুদ দারা, আইন সচিব আবু সালহ শেখ মো. জহিরুল হক, সাবেক রাকসু সহ-সভাপতি রাগিব হাসান মুন্না, রাকসু সদস্য অ্যাডভোকেট আব্রাহাম লিংকন ও প্রফেসর শাহ আজম, প্রফেসর ইমেরিটাস অরুণ কুমার বসাক, প্রফেসর হাসিবুল আলম প্রধান প্রমুখ। শোকসভায় বক্তারা মরহুম বজলুর রহমান ছানাকে একজন কৃতী শিক্ষার্থী ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটে নির্বাচিত ছাত্র প্রতিনিধি হিসেবে শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ে বলিষ্ঠ ভূমিকার কথা উল্লেখ করেন। তারা বলেন, দেশ-জাতি-সমাজের কল্যাণে তিনি ছিলেন নিবেদিতপ্রাণ। আমৃত্যু লালন করেছেন অসাম্প্রদায়িক ও প্রগতিশীল চিন্তা-চেতনা। আরও পড়ুন
    • রাশিয়ায় বৃত্তি ও উচ্চশিক্ষা

      পোস্টের তারিখ : ১৮-০৩-২০১৭
      বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স না পাওয়া, উচ্চশিক্ষা নিয়ে জীবন-মরণ সন্ধিক্ষণে থাকা বা হতাশা কিংবা স্নাতক শেষ করে বিদেশে স্নাতকোত্তর করার ইচ্ছে। কিন্তু মধ্যবিত্তের জীবনের আশা-দুরাশার খেলায় হয়ে ওঠে না। সাধ আছে তো সাধ্য নেই। আশার দুয়ারে আমি আনিব আজ রাঙা প্রভাত! মনে পড়ে সেই বিজ্ঞাপন চিত্রের কথা—সাধ্যের মধ্যে সবটুকু সুখ। হ্যাঁ, মধ্যবিত্তের সাধ্যের মধ্যেই রাশিয়ার উচ্চশিক্ষার সবটুকু সুখ এনে দিতে পারে। রাশিয়ান সরকারের বৃত্তি ও উচ্চশিক্ষার দ্বার উন্মোচিতভাবে ডাকছে নবদিগন্তের উদ্বেলিত সূর্যের মতো। বিগত বছরগুলোর মতো এ বছরও রাশিয়ান সরকার মেধাবী বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষাবৃত্তি ঘোষণা করেছে। বিভিন্ন বিষয়ে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের অনার্স, স্পেশালিস্ট ও মাস্টার্স কোর্সে বৃত্তি প্রদান করবে। লক্ষ্য যদি থাকে উন্নত ও আধুনিক শিক্ষা ব্যবস্থায় জ্ঞান অর্জন করে একজন ভালো মানুষ হওয়া এবং একইসঙ্গে সফল ক্যারিয়ার গড়া, তবে রাশিয়ান সরকারের শিক্ষাবৃত্তি হয়ে উঠবে সোনায়-সোহাগা। সর্বোপরি বাংলাদেশি মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য কোটি টাকার সুবর্ণ সুযোগ। আরও পড়ুন
    • লাইব্রেরি নয়, কনভেনশন সেন্টার হবে জাবিতে

      পোস্টের তারিখ : ১৮-০৩-২০১৭
      ‘আব্দুল কাদির মোল্লা কনভেনশন সেন্টার’র ভিত্তিপ্রস্তর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়: প্রতিষ্ঠার ৪৬ বছর পেরিয়ে গেলেও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে পূর্ণাঙ্গ লাইব্রেরি নির্মাণ করা হয়নি। নেই পর্যাপ্ত গবেষণার সুযোগ। সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়টিতে নির্মিত হয়েছে ‘ওয়াজেদ মিয়া বিজ্ঞান গবেষণা কেন্দ্র’। কিন্তু অর্থের অভাবে সেখানেও নেই গবেষণার পর্যাপ্ত যন্ত্রপাতি। অথচ এই বিশ্ববিদ্যালয়েই নির্মিত হতে যাচ্ছে ‘আব্দুল কাদির মোল্লা কনভেনশন সেন্টার’। থার্মেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদির মোল্লার অর্থায়নে নির্মিত হবে এই কনভেনশন সেন্টার। বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয় দিবসে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম ‘আব্দুল কাদির মোল্লা কনভেনশন সেন্টার’ এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছেন। আবাসিক এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিতে আব্দুল কাদির মোল্লার নামে কনভেনশন সেন্টার নির্মিত করার প্রতিবাদ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংগঠন ও শিক্ষার্থীরা। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকেও তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা। কনভেনশন সেন্টারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের সময় সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখা নেতা-কর্মীরা ‘আব্দুল কাদির মোল্লা কনভেনশন সেন্টার’ নির্মাণের প্রতিবাদ জানিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। আরও পড়ুন
    • ৬ টির মধ্যে ১ - ৬ তম আইটেম দেখানো হচ্ছে